Friday , December 4 2020
Breaking News
Home / Lifestyle / জং দেখা দিচ্ছে রোজকার ব্যবহার্য জিনিসপত্রে? দূর করার উপায়

জং দেখা দিচ্ছে রোজকার ব্যবহার্য জিনিসপত্রে? দূর করার উপায়

আমাদের দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসপত্র সে বাসনকোসন থেকে বাড়ির ইস্ত্রি বা গৃহসজ্জায় লাগানো শোপিস সমস্ত ধাতব সামগ্রীতেই জং বা মরচে ধরে যায় কিছুদিন ব্যবহারের পরে। অনেক সময় কাপড়েও জং’এর দাগ লেগে যায়। সঠিক যত্নের অভাবে, অবহেলায় জং ধরা জিনিস দ্বিতীয়বার ব্যবহার করতে মন ওঠেনা কারোরই।

একক্ষেত্রে তা ফেলে দেয়া হয় বা বদল করে নেয়া হয়। কিন্তু টাকা দিয়ে কেনা জিনিসের অপচয় এভাবে না করে ঘরোয়া উপায়ের সাহায্যেই আপনি করতে পারেন সেটা জং মুক্ত। জেনে নিন কিভাবে তা করবেন।

জং লাগা কেটলি ও টেবিল ক্লক জং ধরে কেন? জং বা মরচে পড়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে বাতাসে ভাসমান জলীয় বাষ্প। বায়ুর আর্দ্রতার সুযোগ নিয়ে সেই জলীয় বাষ্প ধাতব জিনিস বিশেষ করে লোহার জিনিসের উপর বিক্রিয়া করে ফেলে।

জারণ পদ্ধতিতে লোহার উপর জমে আয়রন অক্সাইড এর পরত। যাকে আমরা জং বা মরচে বলে ডাকি।স্টেনলেস স্টিলে এই মরচে আটকাতে জিঙ্ক এরপ্রলেপ দিয়ে গ্যালভেনাইজেশন করা হয়। জং ছাড়ানোর কয়েকটি উপায়: ঘরোয়া কয়েকটি পদ্ধতি আছে যা দিয়ে খুব সহজেই জং’এর দফা রফা করতে পারেন। এর জন্য শুধুমাত্র কয়েকটি সামগ্রী প্রয়োজন। যা কমবেশি সকলের ঘরেই থাকে।

ভিনিগার:
আপনার কিচেনের এককোনে রাখা এই ভিনেগার আপনার অ’স্ত্র হয়ে উঠতে পারে মরচে ছাড়াতে। এটি বাইরে পাওয়া রাসায়নিকের ভালো বিকল্প।M একটি পাত্রে ভিনিগার নিয়ে তাতে জং ধরা সামগ্রীটি ভালো করে আপাদমস্তক চুবিয়ে রেখে দিন ও কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন। বার ভিনিগার থেকে বের করে সেটা পরিষ্কার কাপড় দিয়ে ভালো করে ঘষে ঘষে তুলুন স্টেন গুলো। তারপর চিনতেই পারবেন না আপনার জিনিস। নতুন এর মতোই ঝকঝকে হয়ে উঠবে।

লেবু ও নুন টোটকা:
লেবু নুন কেবল মাংস ভাতে মেখে খেলেই হবে না। তার এই উপকারটির কথাও জানতে হবে।
নুনের সোডিয়াম হলো উত্তম ক্ষারক ও লেবুর সাইট্রিক এসিড মিলে উভয়গুন সম্পন্ন আম্লিক যৌগ সৃষ্টি করে যা সহজেই মরচে পড়া রোধ করতে সক্ষম।
২-৩ টেবিল চামচ নুন ও তার সাথে পরিমান মতো লেবুর রস মিশিয়ে ভালো করে মিশ্রণ তৈরি করে নিন ও মরচে পড়া অংশে ভালো করে মাখিয়ে রেখে দিন। বেশ কয়েক ঘন্টা পর নরম কাপড় দিয়ে সেই অংশটি আলতো করে ঘষে তুলুন। দেখবেন জং এর ছিটেফোঁটা আর অবশিষ্ট নেই। রান্নার বাসন থেকে জং তুলতে এই পদ্ধতি খুবই কার্যকরী। জং ধরা বাসন লেবু নুন দিয়ে পরিষ্কার

বেকিং সোডা:
তেলেভাজাতে ব্যবহার করা বেকিং সোডা কিন্তু কাজে লেগে যেতে পারে আপনার পছন্দের ঘড়ি বা রিস্ট ব্রেসলেট থেকে স্টেন তুলতে। জলের সাথে বেকিং সোডা ভালো করে গুলে একটা মোটামুটি কনসিস্টেনসির পেস্ট তৈরি করুন। খুব বেশি জল দেবেন না। তাতে মিশ্রণ পাতলা হয়ে যাবে। সেটা মরচের উপর দিয়ে রাখুন ও তারপর ঘষে তুলে দিন। এটা ব্যবহার করে রোজকার যন্ত্রপাতি বা আপনার প্রিয় বাহনের গায়ের জং সব ধুয়ে মুছে হয়ে যাবে সাফ।

আলুর ভেলকী:
রোজকার তরকারিতে দেয়া আলুই এবার তুলবে জং। এতে একটু ও অবাক হবেন না। প্রথমে আলু নিয়ে সেটা ডুমো ডুমো করে কেটে ফেলুন ও তার উপর নুন ছড়িয়ে দিন। এবার সেটা দিয়ে জং ধরা অংশের উপর ভালো করে রাব করে নিন। এবার ভেজা ভেজা অবস্থাতেই তার উপর টিস্যু দিয়ে ঘষুন রাস্ট উঠে যাবে। আলুর অক্সালিক এসিড জাদুমন্ত্রের মতো কাজ করে। পার্টস হোক কি নিত্য ব্যবহারের ছুরি কাঁচি সবের উপর ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

টুথপেস্ট: যেকোনো কটন মেড কাপড় নিন ও তাতে যে টুথপেস্টে দাঁত মাজেন সেটা দিন। এরপর সেই কাপড়ে জড়িয়ে রাখুন যে জিনিসে জং পড়েছে।
তারপর ভেজা ব্রাশ দিয়ে সেটা ঘষে ধুয়ে ফেলুন।দেখবেন উঠে যাবে মরচে।

কোকোকোলা বা পেপসি: কোকোকোলা বা পেপসিতে আপনার শোপিস চুবিয়ে রেখে নিন কিছুক্ষন। এবার সেটা বের করে গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। তারপর শুকনো কাপড়ে মুছে নিন।পুরোনো জেল্লা ফিরে আসবে।

দুধের কামাল:
দুধে লেবুর রস মিশিয়ে নিন। তারপর সেটা দিয়ে একটা পেস্টের মত বানান। এবার সেই পেস্ট মরচের উপর দিন ও ফেলে রাখুন। কোনো ব্রাশ দিয়ে এবার সেটা ঘষে তুলুন। দাগ মরচে সব উঠে যাবে। কাঠের আসবাবপত্র এর চমক ফিরিয়ে আনতেও এটা ব্যবহার করে দেখতে পারেন।
এছাড়া কেরোসিন ও শিরীষ কাগজ ও ব্যবহার করে দেখতে পারেন। ভালোই কাজ দিবে।

জং ধরা আটকাতে কি করবেন: বৈদ্যুতিন যন্ত্র যেমন মিক্সার, টোস্টার ইত্যাদি ব্যবহারের পর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলে রেখে দেবেন না। শুকনো করে রাখুন যাতে তাতে জলের বিন্দুমাত্র ছোঁয়া না থাকে। সবজি কাটার, চালনী, বিটার, ছুরি বা কাঁটাচামচ ভালো করে শুকিয়ে বায়ুনিরুদ্ধ করে রাখুন। ফ্রিজের কোনো অংশের রং চটে গেলে তাতে জং ধরে যাবার চান্স বেশি থাকে। তাই চেষ্টা করুন সেই সময়ের আগেই ঘুরে রং করিয়ে নেবার। তাহলে মরচে ধরার সময় পাবেনা। লোহার বঁটি বা ধাতব করাত ইত্যাদিতে ভেসলিন দিয়ে রাখতে পারেন বা ট্রান্সপারেন্ট নেলপলিশ দিলে জং ধরবেনা।

বাড়িতে এক্সহোস্ট ফ্যান ব্যবহার করুন যাতে জলীয় বাষ্প বেশি না জমতে পারে। বাথরুম ও সিঙ্কে সিলিকা জেল রাখতে পারেন। ফলে বেসিনে রাস্ট মার্ক্স আর দেখতে পাবেন না। শুষ্ক রাখবে সব জায়গা জল শুষে নিয়ে।

About khan

Check Also

শেহনাজ হুসেনের দেওয়া ফেসিয়াল করার ঘরোয়া টিপস

ত্বকের যত্নে শেহনাজ হুসেনের ফেসিয়াল টিপস ট্রাই করে নিশ্চয়ই দেখেননি? আপনার ত্বকে যদি গ্ল্যামারের ছোঁয়া ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page