Friday , November 27 2020
Breaking News
Home / Exception / জ্বরে পুড়ে যাচ্ছে মায়ের গা, নিজের জামা খুলে ভিজিয়ে অ’সুস্থ মায়ের মা’থায় জলপট্টি দিল ৩ বছরের শি’শু ভাই’রাল সেই ভিডিও

জ্বরে পুড়ে যাচ্ছে মায়ের গা, নিজের জামা খুলে ভিজিয়ে অ’সুস্থ মায়ের মা’থায় জলপট্টি দিল ৩ বছরের শি’শু ভাই’রাল সেই ভিডিও

করো’না কেড়েছে বহু মানুষের রুজি-রুটির সংস্থান। এক লহমায় সমগ্র পরিবেশটা কে পা’ল্টে দিয়েছে এই মা-র-ণ রো’গ। মানুষের জীবন বদলে গিয়েছে এক মুহূর্তের মধ্যে। মানুষের অসহায় এবং বিপ-র্যস্ত অবস্থা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এমন

কিছু ঘটনা উ’ঠে এসেছে যা দেখে বাক-রুদ্ধ হয়ে গিয়েছে মানুষ। এবং মন হয়ে উঠেছে ভা’রা-ক্রান্ত।যে বয়সে অন্য শি’শুরা আদরে যত্নে বড় হচ্ছে, স্কুল যেতে শুরু করছে, লেখাপড়া করছে, খেলাধুলা করছে, সেই বয়সেই আর একটি

শি’শুর এক লহ-মায় যেন বড় হয়ে উঠেছে। একটি দুঃ-খ-জনক ঘটনা দেখা গিয়েছে বাংলার জলপাইগুড়ি জে’লায়। পথচলতি মানুষদের করেন এক ৩ বছরের শি’শু তার অ’সুস্থ মায়ের মা’থায় নিজের জামা প্যা’ন্ট খু’লে পাশের কল থেকে ভিজিয়ে এনে জলপট্টি দিচ্ছে। তখনই সাধারণ মানুষ জানতে পারেন, ওই মহিলা কয়েকদিন ধরেই ওখানে আশ্রয় নিয়েছেন। এই ঘটনাটি জলপাইগুড়ির কতোয়ালী থা’না এলাকায় ঘটেছে। ওই ভবঘুরে মহিলা তার 3 বছরের শি’শুকে নিয়ে

কয়েকদিন ধরেই সেখানে থাকছিলেন মহিলার নাম রেখা। তিনি পরিচারিকার কাজ করতেন, করো’নার এই ভ’য়া-বহ আবহে পরিচারিকার কাজ হারিয়েছেন তিনি। স্বামী তাঁকে এবং তাঁর তিন বছরের ছে’লেকে ছে’ড়ে দিয়ে চলে গিয়েছে অন্য কোথাও। বি-প-র্য-য়ে-র আকাশ ভে-ঙে পড়েছে ওই মহিলার মা’থায়। কিভাবে অন্নসংস্থান করবেন কিছুতেই বুঝতে পারছিলেন না।

তিন বছরের দুধের শি’শুপুত্রের মুখে কিভাবে খাবার তু’লে দেবেন তা কিছুতেই ভেবে উঠতে পারছিলেননা রেখা ছে’লেকে নিয়ে পথেই আশ্রয় নেন তিনি। চেয়ে চিনতে যেভাবে হোক ছে’লের মুখে অন্ন তুলে দিতে থাকেন তিনি। অ’সুস্থ মহিলাকে যেভাবে তাঁর দুধের সন্তান সেবা করছে তা দেখে চোখের জল আ-ট-কা-তে পারেননি কেউই।থা’নার পু’লিশ

ওই মহিলাকে খাবার দেন। খবর পেয়ে ছুটে আসেন জলপাইগুড়ি পুরসভা’র বোর্ডের সদস্য সৈকত চ্যাটার্জী। তিনি ওই অ’সুস্থ মহিলার সেবা-শুশ্রূষা এবং খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করেন তিনি পুরসভা’র অন্তর্গত ভবঘুরেদের জন্য যে থাকার জায়গা আছে সেখানে আপাতত ওই মহিলাকে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন ওই মহিলার যতদিন খুশি সেখানে থাকতে পারেন। এই ঘট’নাটি চোখের জল এনে দিয়েছে সকল মানুষেরই। ওই শি’শুর ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত সকলেই। মাত্র এতোটুকু বয়সে কঠোর বাস্তব ওই শি’শুকে শি’খিয়ে দিয়েছে বড়ো হতে মহিলার নাম রেখা। তিনি পরিচারিকার কাজ করতেন, করো’নার এই ভয়া-বহ আবহে পরিচারিকার কাজ হারিয়েছেন তিনি।

স্বামী তাঁকে এবং তাঁর তিন বছরের ছে’লেকে ছে’ড়ে দিয়ে চলে গিয়েছে অন্য কোথাও। বি-প-র্য-য়ে-র আকাশ ভে-ঙে পড়েছে ওই মহিলার মা’থায়। কিভাবে অন্নসংস্থান করবেন কিছুতেই বুঝতে পারছিলেন না। তিন বছরের দুধের শি’শুপুত্রের মুখে কিভাবে খাবার তুলে দেবেন তা কিছুতেই ভেবে উঠতে পারছিলেননা রেখা ছে’লেকে নিয়ে পথেই আশ্রয় নেন তিনি। চেয়ে চিনতে যেভাবে হোক ছে’লের মুখে অন্ন তুলে দিতে থাকেন তিনি। অ’সুস্থ মহিলাকে যেভাবে তাঁর দুধের সন্তান সেবা করছে তা দেখে চোখের জল আ-ট-কা-তে পারেননি কেউই।থা’নার পু’লিশ ওই মহিলাকে খাবার দেন। খবর পেয়ে ছুটে আসেন জলপাইগুড়ি পুরসভা’র বোর্ডের সদস্য সৈকত চ্যাটার্জী।

তিনি ওই অ’সুস্থ মহিলার সেবা-শুশ্রূষা এবং খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করেন। তিনি পুরসভা’র অন্তর্গত ভবঘুরেদের জন্য যে থাকার জায়গা আছে সেখানে আপাতত ওই মহিলাকে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন ওই মহিলার যতদিন খুশি সেখানে থাকতে পারেন। এই ঘটনাটি চোখের জল এনে দিয়েছে সকল মানুষেরই। ওই শি’শুর ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত সকলেই। মাত্র এতোটুকু বয়সে কঠোর বাস্তব ওই শি’শুকে শিখিয়ে দিয়েছে বড়ো হতে।

About khan

Check Also

না খেয়ে থাকতে পারি, কিন্তু শা’রীরিক স’ম্পর্ক ছাড়া থাকতে পারি না: সামান্থা

না খেয়ে থাকতে পারলেও শারী’রিক স’ম্পর্ক ছাড়া থাকতে পারবেন না বলে মন্তব্য করেছেন তামিল ও ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page