Tuesday , September 22 2020
Breaking News
Home / Education / বিসিএস কনফিডেন্সের ভর্তি মেলা

বিসিএস কনফিডেন্সের ভর্তি মেলা

চাকরির খরার এই যুগে দিনে দিনে বেড়েই চলেছে বিসিএস পরীক্ষার্থীর সংখ্যা। বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের (পিএসসি) অধীন স্বচ্ছতার এই চাকরিমাধ্যমটিতে টিকে যাওয়ার স্বপ্ন থাকে প্রতিটি মেধাবী তরুণদের মধ্যে।

এ প্রয়োজনীয়তাই অনুধাবন করে প্রতিবছরের মতো এবারো বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতির সবচেয়ে বড় কোচিং লায়ন তাছলিমা গিয়াস পরিচালিত বিসিএস কনফিডেন্সের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে ৪১তম ক্যাডার চয়েস, নির্ভুল ফরম পূরণ ও ভর্তি মেলা।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) রাজধানীর শাহবাগে পাবলিক লাইব্রেরির শওকত ওসমান মিলনায়তনে ভর্তি মেলা উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিএস কনফিডেন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চেয়ারম্যান লায়ন তাসলিমা গিয়াস।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বিসিএস পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে নানা দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন— বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের সাবেক পরীক্ষক প্রফেসর এম ইউ খান, বাংলাদেশ পুলিশের সাবেক ডিআইজি ভানু লাল দাস, সরকারের উপসচিব মো. আলমগীর, ২৮তম বিসিএস ক্যাডার এম. এম. কবির আহমেদ ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌস কাঁকন।

ব্যতিক্রমধর্মী এ উন্মুক্ত আলোচনা পরিচালনা করেন বিসিএস কনফিডেন্সের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ক্যায়িরার কনসালটেন্ট মু. জিয়াউল ইসলাম।

লায়ন তাসলিমা গিয়াস বলেন, ফরম পূরণ উপলক্ষে ভর্তি মেলায় ছিল বিশাল ছাড়ের মহড়া। এখান থেকে বিশাল ছাড়ে ভর্তির সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড় চলবে আগামী তিনদিন পর্যন্ত।

তিনি বলেন, এই মেলায় নির্ভুল ফরম পূরণ, পদ নির্বাচন, ক্যারিয়ার গঠন ও ৪১/৪২তম প্রিলির শুরুতেই সাফল্য পাওয়ার জন্য নানা গাইডলাইনের জন্যই এমন আয়োজন করে থাকে বিসিএস কনফিডেন্স। এতে করে আমরা শিক্ষার্থীদের প্রচুর সাড়া পেয়ে থাকি।

তাসলিমা গিয়াস বলেন, এই মেলা থেকে ফরম পূরণ নির্ভুলভাবে করা হয়ে থাকে। কেননা বিসিএসে টেকার প্রাথমিক যোগ্যতা হচ্ছে ফরম পূরণ। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যারা বাড়িতে বসে প্রস্তুতি নেয় তারাও এই সেমিনারে এসে উপকৃত হয়।

আয়োজকরা জানান, ভর্তি মেলায় এবারে থাকছে ৪১তম প্রিলিমিনারি ও এক্সাম ব্যাচ এবং ৪২তম অ্যাডভান্স ব্যাচ।

৪২তম প্রিলিমিনারি কোর্সে যা থাকছে-

১৩০টি ২ ঘণ্টার ক্লাস করানো হবে। যার মধ্যে গণিত ও ইংরেজির অতিরিক্ত ক্লাস প্রদান ও প্রথম পর্বের ব্যাচগুলোতে ৫০-৬০ শতাংশ লিখিত সিলেবাস সম্পন্ন করা হবে।

যা সার্কুলারের পরে সম্ভব না। এছাড়াও থাকছে ১৩০টি ক্লাস টেস্ট, ১২টি অ্যাসাইনমেন্ট টেস্ট, ১২টি বিষয়ভিত্তিক টেস্ট, ১০টি মডেল টেস্ট, ১০টি রিভিউ টেস্ট, ৬টি মূল্যায়ন টেস্ট, ৫টি চূড়ান্ত মডেল টেস্ট ও প্রয়োজনীয় ১৩০টি লেকচারশিট।

About Dolon khan

Check Also

বিসিএস লিখিত পরীক্ষা: ইংরেজিতে ভালো করতে হলে

৩৭তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি। পরীক্ষার নানা কলাকৌশল নিয়ে বিষয়ভিত্তিক পরামর্শ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *