Friday , September 18 2020
Breaking News
Home / Education / ‘বিসিএস পাস বেকার’র ভিডিও ভাইরাল

‘বিসিএস পাস বেকার’র ভিডিও ভাইরাল

‘আমি মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম। আমার হোম ডিসট্রিক্ট দিনাজপুর জেলার সদর থানার অন্তর্গত। আমার স্থায়ী আবাস হচ্ছে কসবা। পোস্ট হচ্ছে পুলহাট, দিনাজুর সদর, দিনাজপুর। আমি মূলত এখানে যেজন্য দাঁড়িয়েছি সেটা হচ্ছে আমাদের দেশের সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা ধারণা আছে যে, বিসিএস পাস করলেই চাকরি হয়। এই ধারণা যে পুরোপুরি সত্য না- এটা প্রচারই আমার মূল উদ্দেশ্য।’ প্রেসক্লাবের সামনে একটি সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে কথাগুলো বলছিলেন নিজেকে ‘বিসিএস পাস বেকার’ দাবি করা আমিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, আমার বিসিএস ছিলো ৩৪তম। এখন চলছে ৪১তম। এখানে অনেক বড় একটা গ্যাপ। আমাদের আশা ছিলো, ৩৪তম বিসিবিএস আমরা যারা পাশ করলাম- প্রিলি, রিটেন, ভাইবা; যারা নন ক্যাডার হলাম, আমরা ভাবলাম, এদের নিয়োগটা সরকার পর্যায়ক্রমে দিয়ে দেবে।… কিন্তু ফাইনালি আমি যখন দেখলাম আমদের কোনো নিয়োগই হলো না। তখন আমর কাছে মনে হলো, যেহেতু মিডিয়ার যুগ তাই একটু মিডিয়ার সামনে যাই।

আমিনুল ইসলামের গলায় একটি ব্যানার ঝুলানো দেখা যায় ওই ভিডিওতে। যে ব্যানারে লেখা- বিসিএস পাস বেকার। বিসিএস পাস করেও কেনো চাকরি মেলে না। তোমার কাছে বিচার দিলাম বঙ্গবন্ধুর মা।

তিনি বলেন, এখানে অনেকেই হয়তো বুঝবেন না, বঙ্গবন্ধুর মা কে? এটা আসলে আমার নিজস্ব সম্বোধন।

বিসিএস পাশ করেও চাকরি না পাওয়ার জন্য পিএসসি দায়ী করেন আমিনুল ইসলাম। তোমার যদি পোস্ট ভ্যাকেন্ট না থাকে তাহলে আমাকে প্রিলি, রিটেন এমনকি ভাইবাতেও সুযোগ ছিলো কেটে দেয়ার, ছেঁটে দেয়ার। কিন্তু আমাকে পাস করানো হলো। এখন আমাকে চাকরি দেবে না। এই প্রহসনের তো কোনো অর্থ হয় না।

তরঙ্গ টিভি নামের লোগো সম্বলিত ভিডিওটি কবে ধারণ করা তা জানা যায়নি।

পুরো ভিডিওটি দেখুন-

বিসিএস পাশ বেকার

Posted by Duranto24.com on Thursday, December 26, 2019

About Dolon khan

Check Also

টিউশনির পাশাপাশি চাকরির প্রস্তুতিতে ‘গ্রুপ স্টাডি’ বেশি কাজে দিয়েছে

২০০৬ সালে শরীয়তপুরের আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং ২০০৮ সালে চাঁদপুরের আল-আমিন একাডেমি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *