Thursday , October 22 2020
Breaking News
Home / Education / চা বিস্কুট খেতে খেতে ভাইভা দেবেন বিসিএস পরীক্ষার্থীরা

চা বিস্কুট খেতে খেতে ভাইভা দেবেন বিসিএস পরীক্ষার্থীরা

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের (বিসিএস) মৌখিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের ভীতি কাটাতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। এজন্য প্রথমবারের মতো ৩৮তম বিসিএসের ভাইভা পরীক্ষায় প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে পানির পাশাপাশি এক কাপ চা ও একটি বিস্কুটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক ইত্তেফাককে বলেন, মৌখিক পরীক্ষার টেবিলে জড়তা দূর করতে কমিশনের পক্ষ থেকে সামান্য পরিসরে প্রতি পরীক্ষার্থীর জন্য পানি, এক কাপ চা ও বিস্কুটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এটি পরীক্ষার্থীদের দেওয়া ফির অংশ থেকে করা হয়েছে। আমি মনে করি, এতে এক জন পরীক্ষার্থী কিছুটা হলেও সাবলীলভাবে প্রশ্নের জবাব দিতে উপকৃত হচ্ছেন।

গত ২৯ জুলাই থেকে ৩৮তম বিসিএসের সাধারণ ক্যাডারে মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয়। ঈদের আগে গত ১ আগস্ট পর্যন্ত ভাইভা চলে। গত মঙ্গলবার থেকে পুনরায় ভাইভা শুরু হয়েছে। সাধারণ ক্যাডারের এই ভাইভা চলবে ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এরপর সাধারণ ও প্রফেশনাল ক্যাডারে এবং সবশেষ কারিগরি ক্যাডারের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। ৩৮তম বিসিএসের ভাইভায় অংশগ্রহণ শেষে বেশকয়েকজন পরীক্ষার্থী জানিয়েছেন, এর আগে কখনো পিএসসির পক্ষ থেকে এ ধরনের ব্যবস্থা ছিল না। ক্ষুদ্র আয়োজন হলেও পরীক্ষার্থীদের জন্য এটি বিশাল ব্যাপার।

এদিকে, বিসিএসের ভাইভা পরীক্ষায় করা পরীক্ষকের প্রশ্ন পরীক্ষার্থীরা বাইরে ফাঁস করছেন বলে অভিযোগ এসেছে। দেখা গেছে, ভাইভাতে কী কী প্রশ্ন জিজ্ঞেস করা হয়েছে তা জানতে অপেক্ষমাণ প্রার্থীরা হুমড়ি খেয়ে বোর্ড থেকে বেরিয়ে আসা প্রার্থীদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। প্রার্থীরাও কোনো কিছু চিন্তা না করে তাদেরকে করা সব প্রশ্ন বলে দিচ্ছেন। ফলে যখন ভাইভা বোর্ডের প্রশ্নগুলো সবার সঙ্গে শেয়ার হচ্ছে তখন বাকিরা সেই অনুযায়ী প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এটি নিয়ে পিএসসি পরীক্ষার্থীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলেও তা মানা হচ্ছে না। তাই পিএসসির পক্ষ থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পিএসসির চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের কাছেও এ ধরনের অভিযোগ এসেছে। একজন পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে এ ধরনের আচরণ কাম্য নয়। ভাইভা পরীক্ষা গোপনীয় বিষয়। সেটি কোনোভাবেই বাইরে অপেক্ষমাণ প্রার্থীদের কাছে প্রকাশ করা ঠিক নয়।

About Dolon khan

Check Also

“হানিফ সংকেত” ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্র ছিলেন

“হানিফ সংকেত” ও ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। তিনি বাংলাদেশ সুইডেন পলিটেকনিকের স্টুডেন্ট ছিলেন।দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x