Thursday , January 21 2021
Breaking News
Home / অবাক পৃথিবী / করো’নাকে সহ’জেই রুখে দিতে নাক দিয়ে শ্বা’স গ্রহণের ফর্মুলা

করো’নাকে সহ’জেই রুখে দিতে নাক দিয়ে শ্বা’স গ্রহণের ফর্মুলা

প্রা’ণায়াম ও যোগাভ্যাসে করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ রুখে দেওয়া যায় বলে আগেই দাবি করেছেন অনেকে। যাতে শ্বা’স-প্রশ্বা’সের নিয়ম মানার কথাও বলা হয়েছে। এবার তেমনই দাবি করলেন নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী লুইস জে ইগনারো। আর সেই দাবি নিয়ে হৈচৈ পড়ে গেছে।

কী’ সেই দাবি? ইগনারো বলছেন, নাক দিয়ে নিঃশ্বা’স গ্রহণ করতে হবে আর মুখ দিয়ে ছাড়তে হবে। আর তাতেই আ’ট’কে দেওয়া যাবে করো’নার সংক্রমণ। তাঁর আরো দাবি, নাক দিয়ে শ্বা’স নিয়ে মুখ দিয়ে তা পরিত্যাগ করাটা খুবই উপকারী পদ্ধতি। এতে শরীরে নাইট্রিক অক্সাইড উৎপন্ন হয়, ফুসফুসে র’ক্ত সঞ্চালন বাড়ে আর গোটা শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়।

দ্য কনভা’র্সেশন প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, কোনো মানুষ ঠিক কিভাবে শ্বা’স নেয়, তার ওপর নির্ভর করতে পারে করো’না সংক্রমণ আ’ট’কানো যাবে কি না। প্রতিবেদনে এও দাবি করা হয়েছে, যাঁরা নাক দিয়ে শ্বা’স গ্রহণ করে মুখ দিয়ে ছাড়েন তাঁদের শরীরে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাই বেশি হয়। আর সেই দাবিকে একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। কারণ দাবিটি করেছেন নোবেলজয়ী ফার্মাকোলজিস্ট লুইস জে ইগনারো।

ইগনারো ১৯৯৮ সালে মেডিসিনে নোবেল পান। তাঁরই গবেষণা অনুযায়ী যাঁরা নাক ও মুখ দিয়ে শ্বা’স-প্রশ্বা’স নেন তাঁদের ন্যাজাল ক্যাভিটিতে নাইট্রিক অক্সাইড তৈরি হয়। এই মলিকিউল ফুসফুসে র’ক্তের প্রবাহ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। একই সঙ্গে র’ক্তে অক্সিজেনের মাত্রা বাড়িয়ে তোলে।

বিজ্ঞানীদের দাবি, যখন কেউ নাক দিয়ে শ্বা’স নেয়, তখন নাইট্রিক অক্সাইড সরাসরি ফুসফুসে পৌঁছে যায়। এর জেরে করো’নাভাই’রাসের ফুসফুসে রেপ্লিকেশন আ’ট’কে দেয়। র’ক্তে অধিক অক্সিজেন থাকলে মানুষ সতেজ বোধ করে।

মানুষের শরীরে সব সময় নাইট্রিক অক্সাইড তৈরি হয় আর তার মাধ্যমে মানব দেহের ধমনি ও শিরাগুলোতে, বিশেষত ফুসফুসের এন্ডোথেলিয়াম গঠনে সহায়তা করে। এই এন্ডোথেলিয়াম ধমনির পেশিগুলো মসৃণ করতে সহায়তা করে, যা উচ্চ র’ক্তচাপ স’ম্পর্কিত সমস্যা প্রতিরোধে সহায়তা করে। সূত্র: দি ওয়াল।

About khan

Check Also

প্রতি বছর যেখানে হয় ‘মাছের বৃষ্টি’!

আমেরিকার হন্ডুরাসের লোকাচার বিদ্যায় মাছ বৃষ্টি এখন একটি সাধারণ ঘ’টনা। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, এ অবিশ্বা’স্য প্রাকৃতিক ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page