Friday , January 15 2021
Breaking News
Home / News / এবছর বেজায় সস্তা হতে চলেছে বাঙালির প্রিয় ইলিশ, জেনে নিন কবে থেকে

এবছর বেজায় সস্তা হতে চলেছে বাঙালির প্রিয় ইলিশ, জেনে নিন কবে থেকে

সারাবিশ্বে মহামারী করো না জেরে থমকে গেছে অর্থনীতি থমকে গেছে মানুষের কাজকর্ম অনেক মানুষ কাজ হারা হয়ে পড়েছে আবার কেউ কেউ না খেতে পেয়ে জীবন শেষ হয়ে যাচ্ছে কিন্তু এই পরিস্থিতিতে মানুষ যেটুকু জীবনধারণের জন্য খাবার প্রয়োজন সেটুকু সংগ্রহ করতে নাজেহাল তার ওপর বাড়তি পাওয়া কখনোই সম্ভব নয় আমাদের বাঙালি জীবনের ভাতে মাছে অভ্যস্ত তাই নুন ভাত খাওয়ার অর্থটুকু অনেকে জোগাড় হচ্ছে না কি করে হবে ইলিশ মাছ ভাত খাওয়ার সামর্থ্য

লকডাউন আর আমফানের জেরে বেশ কয়েক মাস সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়া নিষেধ ছিল। আর মাত্র কয়েকদিনের মধ্যই দিঘার সমুদ্রে নামছে ট্রলার। পাশাপাশি নামখানাতেও ট্রলার নামানোর তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে ইতিমধ্যেই। প্রায় একটানা ১০০ দিন বন্ধ থাকার পর এবার মৎস্যজীবীরা সমুদ্রে মাছ ধরতে যাচ্ছেন। দীর্ঘদিন মাছধরা বন্ধ থাকায় এবং লকডাউনের জেরে সমুদ্রে দূষণ কম থাকায় ইতিমধ্যেই ইলিশ মাছের অবাধ প্রজনন সম্ভব হয়েছে। এমনকি ছোট ছোট ইলিশ মাছও এবছর চোরাশিকারিদের হাতে ধরা পড়েনি। তাই সেগুলি যথেষ্ট বেড়ে ওঠার সময় পেয়েছে।

এদিকে মৎস বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে জুনের মাঝামাঝি সময়টা ইলিশের বেড়ে উঠার পক্ষে আদর্শ সময়। সাধারণভাবে প্রজননের সময় থেকে দেড় মাসের মধ্যে ৭০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি পর্যন্ত ইলিশের বৃদ্ধি ঘটে। এই কারণেই বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ঠিক ওই সময়টা লকডাউন চলার ফলে ইলিশমাছ যথেষ্ট পরিমানে বেড়ে ওঠার সময় পেয়েছে। কয়েকদিন আগেই দেখা গেছে, দিঘার পাড়ে প্রায় ১ কেজি থেকে ১.৫ কেজি ওজনের ইলিশমাছ লাফাচ্ছে। অন্যদিকে, এবছর ইলিশের দামটাও কম থাকবে কারণ সেগুলি বিদেশে রপ্তানি হবে না, তাছাড়া সেগুলি স্বাদে-গন্ধেও ভরপুর হবে। অর্থাৎ, সব মিলিয়ে এবছর ভোজনরসিক বাঙালির পাতে যে ইলিশমাছের অভাব হবেনা, তা বলাই বাহুল্য।

About khan

Check Also

পানির দা’মে নেমে এলো স্ব’র্ণের দাম, ক্রে’তা’দের উপ’চেপড়া ভীড়!

“আরেক দফা কমেছে সোনার দর। সোনার বাজারে দরপতন হলেও বাড়তির দিকেই ছিল রুপার মূল্য। সোমবার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page