Friday , June 25 2021
Breaking News
Home / News / সোমবারের মধ্যেই দিতে হবে বর্ধিত বেতন, না হলে ফোন যাবে ‘দিদিকে বলো’তে

সোমবারের মধ্যেই দিতে হবে বর্ধিত বেতন, না হলে ফোন যাবে ‘দিদিকে বলো’তে

উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহর পুরসভায় অস্থায়ী কর্মীদের বিক্ষোভের জেরে উত্তেজনা। আজ শনিবার সকাল থেকে দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে পুরসভা চত্বরে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপক লাঠিচার্জ করে হটিয়ে দেয় বিক্ষোভকারী কর্মীদের।

বেতন বৃদ্ধির দাবি দীর্ঘক্ষণ ধরে হালিশহর পুরসভায় বিক্ষোভ দেখায় অস্থায়ী কর্মীরা। পুরভায় বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি ওই অস্থায়ী কর্মীরা বেশকিছুক্ষন ঘোষ পাড়া রোড অবরোধ করে রাখেন।

ফলে যানজটের সৃষ্টি হয় ঘোষ পাড়া রোডে।
এরপর বিজপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠি চার্জ করে বিক্ষোভকারী অস্থায়ী সাফাই কর্মীদের হটিয়ে দেয়। ফলে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় হালিশহর পৌরসভায়।

অস্থায়ী কর্মীরা এদিন তৃণমূলের পতাকা নিয়েই বিক্ষোভ দেখান পুরসভা চত্বরে। বিক্ষোভকারী অস্থায়ী কর্মীদের অভিযোগ তৃণমূল পরিচালিত হালিশহর পুরসভার পুরপ্রধান অংশুমান রায় আর্থিক দুর্নীতিতে যুক্ত তাই বারবার দরবার করা সত্বেও কিছুতেই অস্থায়ী কর্মীদের বেতন বাড়ানো হচ্ছে না।

আন্দোলনকারি শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন “২০১৮ সালের জানুয়ারী মাস থেকে অস্থায়ী কর্মীদের কোন বেতন বাড়েনি ।
রাজ্য সরকার যে বেতন বাড়িয়ে ছিল আমরা এখন সেই বেতন পাচ্ছি না, সরকারী ঘোষণা সত্বেও আমাদের বেতন বাড়ছে না তাহলে সেই অতিরিক্ত বেতন কোথায় যাচ্ছে তার কোন উত্তর পুরসভা থেকে আমরা পাই নি। পুর প্রধান আমাদের কোন কথাই শুনছেন না। আরএ তাই আজ আমরা বাধ্য হয়ে এই পথ বেছে নিয়েছি।

তাছাড়া এই পুরসভার কর্মরত অনেক অস্থায়ী শ্রমিক আছেন যারা ১৫ বছর ধরে কাজ করা সত্ত্বেও তাদের স্থায়ী করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ আন্দোলনকারীদের। একই সঙ্গে তাঁদের দাবি, নতুনদের কাজে নিয়ে কিছুদিনের মধ্যেই অন্যায় ভাবে তাদের স্থায়ী করা হচ্ছে। যার প্রতিবাদ আমরা আজ করছি।

বিক্ষোভকারীদের হুঁশিয়ারি, আগামী সোমবারের মধ্যে বর্ধিত বেতন দিতে হবে। একই সঙ্গে ১৫ বছর ধরে পুরসভার কাজ করা অস্থায়ী কর্মীদের স্থায়ী করবার ব্যবস্থা নিতে হবে। আর এই সমস্ত দাবি না মানলে আমরা সবাই মিলে দিদিকে বলো নম্বরে ফোন করে সব ঘটনা বলে দেবো।”

About khan

Check Also

সুখবর: এখন থেকে মেয়েরা গ’র্ভবতী হলে পাবে দেড় লক্ষ টাকা!

প্রথমবারের মত জন্ম হারের চেয়ে মৃ’ত্যু হার বেড়ে যাওয়ায় দম্পতিদের সন্তান নিতে উৎসাহিত করতে আর্থিক ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *