Monday , March 8 2021
Breaking News
Home / News / শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্র-ছা’ত্রীদের ১০ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্র-ছা’ত্রীদের ১০ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ

করো’নাভাই’রাস পরিস্থিতির কারণে সরকার দেশব্যাপী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্র-ছা’ত্রীদের ১০ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ দিয়েছে। সম্প্রতি অর্থ বিভাগের সম্মতির পর বুধবার (২৪ জুন) শিক্ষা মন্ত্রণালয় এই অনুদানের আদেশ জারি করে।শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, এই অনুদান থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের আওতাধীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্রছা’ত্রীদের জন্য ছয় কোটি এবং

কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্রছা’ত্রীদের জন্য ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে সরাসরি এই টাকা শিক্ষক এবং ছাত্রছা’ত্রীদের কাছে পৌঁছে যাবে।শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, প্রতিবছরই আম’রা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিশেষ অনুদান দিয়ে থাকি। তবে কারোনার কারণে এবার সংশোধিত বাজেটে এই অর্থ বাড়ানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের আদেশে বলা হয়, চলতি অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অধীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক এবং ছাত্রছা’ত্রীদের জন্য ছয় কোটি টাকা আর্থিক অনুদান শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্রছা’ত্রীদের মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে মঞ্জুর দেওয়া হলো। একইভাবে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের জন্য চার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। এই অনুদান থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ’মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) ৩০০ শিক্ষককে ২০ হাজার করে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়।

ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির ৩ হাজার ১৫১ জন শিক্ষার্থীকে ৫ হাজার করে, নবম ও দশম শ্রেণির ২ হাজার ২৫০ জন শিক্ষার্থীকে ৫ হাজার করে, একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির এক হাজার ৫০০ শিক্ষার্থীকে ৬ হাজার করে, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শ্রেণির এক হাজার ২৮৫ জন শিক্ষার্থীকে ৭ হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়।কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৪০০ শিক্ষককে ১০ হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়। আর কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন স্তরের ৫ হাজার ৯৯১ জন ছাত্রছা’ত্রীকে ৩ থেকে ৭ হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়।

About khan

Check Also

ফেলে দেওয়া প্লাষ্টিকের বোতল থেকে বছরে আয় ৪০ কোটি টাকা!

২০১০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে মাস্টার্স শেষ করেন হাবিবুর রহমান জুয়েল। সবাই তাঁকে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *