Thursday , May 13 2021
Breaking News
Home / Health / মাংস কি আমাদের শরীরের জন্য উপকারি?

মাংস কি আমাদের শরীরের জন্য উপকারি?

মাংস খেতে আমরা কম-বেশি সকলেই পছন্দ করি। মাংস, প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাটের দুর্দান্ত উৎস। এই উভয় পুষ্টিই আমাদের শরীরের জন্য অতি প্রয়োজনীয়। তাই অবশ্যই মাংস আপনার ডায়েটের একটি অংশ হওয়া উচিত। তবে, তবে, এই মাংস আমাদের শরীরের জন্য আদতেই কতটা উপকারি তা কি জানেন?

মাংস একটি উচ্চ-প্রোটিনযুক্ত খাবার এবং এটি সবার শরীরে বিপাক ক্রিয়ায় সঠিকভাবে কাজ করে না। অনেকেরই মাংস খাওয়ার পরে কোনওরকম সমস্যা হয় না, আবার অনেকেই মাংস খাওয়ার পরে অস্বস্তি অনুভব করতে পারে।

অতিরিক্ত মাংস খেলে যে জিনিসগুলি আপনার শরীরে হতে পারে সেগুলি এখানে দেওয়া হল।

পেট ফাঁপা

মাংস খাওয়ার পরে পেট ফাঁপা বা ফোলা অনুভূত হতে পারে, সেই সঙ্গে পেটে অস্বস্তি বা ব্যথাও হতে পারে। আপনি যদি এরকম কিছু অনুভব করেন, তবে জানবেন খাবারটি সঠিকভাবে হজম হয়নি এবং সুস্থ থাকতে আপনার খাদ্যতালিকা থেকে মাংস বাদ দিন।

কোষ্ঠকাঠিন্য

মাংস, বিশেষত রেড মিটে ফাইবার কম থাকে, যা কোষ্ঠকাঠিন্যের ঝুঁকি বাড়ায়। এছাড়াও, রেড মিটে ফ্যাট বেশি থাকে এবং উচ্চ ফ্যাটযুক্ত খাবার হজম করতে বেশি সময় নেয়, যা বদহজম এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের দিকে যায়।

নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ

মাংসের মতো উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়ার ফলে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হতে পারে। মাংস খাওয়ার পর পাচনতন্ত্রে পরিপাকে সমস্যা হলে পাচক অ্যানজাইম দ্বারা দুর্গন্ধযুক্ত গ্যাস তৈরি হয়, যার কারণে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হয়।

অবসাদ উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবারগুলিতে ট্রাইপটোফেন নামক একটি অ্যামিনো অ্যাসিড থাকে, যা দেহে সেরোটোনিন উৎপাদন করতে ব্যবহার করে। এর কারণে ক্লান্তি এবং তন্দ্রার সৃষ্টি হয়। বমি বমি ভাব মাংস পরিপাক না হওয়ার উপসর্গগুলোর মধ্যে বমি ভাব, অম্বল, বদহজম অন্যতম। এগুলি আমাদের প্রচণ্ড অস্বস্তিতে ফেলতে পারে। একটি গবেষণা অনুযায়ী, যে সমস্ত পুরুষরা অতিরিক্ত পরিমাণে রেড মিট খান তাদের ডাইভার্টিকুলাইটিস নামক কোলনের একটি বেদনাদায়ক প্রদাহজনক অবস্থার ঝুঁকি বেড়ে যায়, যার কারণে পেটে তীব্র ব্যথা এবং বমি বমি ভাব দেখা দেয়।

About khan

Check Also

মুখের দুর্গন্ধ হ্রাস করে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় ফিটকিরি, কিভাবে জানুন

প্রতিটি বাড়িতেই ফিটকিরি পাওয়া যায়। মানুষ সাধারণত এটি জল পরিষ্কার করতে ব্যবহার করে। তবে এর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *