Sunday , July 25 2021
Breaking News
Home / Lifestyle / নিজের দপ্তর থেকে শীততাপ যন্ত্র খুলে শিশু বিকাশ কেন্দ্রে লাগালেন এই সরকারি ডাক্তার !

নিজের দপ্তর থেকে শীততাপ যন্ত্র খুলে শিশু বিকাশ কেন্দ্রে লাগালেন এই সরকারি ডাক্তার !

বিভিন্ন দেশে উষ্ণতার জেরে সকলে বিধ্বস্ত হয়ে উঠছে । দেশে যে রকম গরম দিনের পর দিন বাড়ছে সেরকম কিছু কিছু রাজ্যের তাপমাত্রা একটু বেশি পরিমাণে বৃদ্ধি পাচ্ছে । যেমন যেমন উত্তর প্রদেশ রাজস্থান মধ্যপ্রদেশ ইত্যাদি রাজ্যে উষ্ণতার মাত্রা একটু বেশি পরিমাণে বিরাজ করছে । সাধারণ মানুষেরা তাপমাত্রার কবলে একেবারে মর্মাহত হয়ে পড়ছে । এই সব রাজ্যের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা প্রায় ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এর উর্দ্ধে উঠে চলছে ।

এই গরমের যে সহ্য করতে না পেরে অসংখ্য মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছে কারন আমাদের দেশে সকলের আর্থিক অবস্থা তো ভালো নয় তাই অনেকেরই শীততাপ যন্ত্র ব্যবহার করার মত ক্ষমতা থাকে না । এ রকমই এক সাধারন মানুষ সরকারি কর্মচারী এক মহান ব্যক্তিত্বের পরিচয় দিল একটি ঘটনা ঘটিয়ে ।

তিনি তার নিজের দপ্তর এবং কনফারেন্স রুমের যে ক’টি শীততাপ যন্ত্রের ছিল সমস্ত খুলে ফেললেন এবং সেগুলো নিয়ে গিয়ে প্রায় ৪ টি পুষ্টি বিকাশ কেন্দ্রে লাগিয়ে দিলেন যাতে এই গরমের হাত থেকে শিশুরা বেঁচে যায় এবং সুস্থভাবে বেড়ে উঠতে পারে । এক সরকারি আমলা হয়ে এত বড় পদক্ষেপ সারাদেশে এক মহানত্বের প্রভাব ফেলে ।

এই মহান ব্যক্তি টি মধ্যপ্রদেশের উড়িয়া জেলায় বসবাস করে সে জেলাতেই তিনি এক সরকারি কালেক্টর অর্থাৎ জেলাশাসক । স্বরোচিশ সোমবংশী নামক এই সরকারি আমলা এই পদক্ষেপের মাধ্যমে প্রায় সারা দেশবাসীর মন জয় করে নেয় ।তার বক্তব্য অনুযায়ী জানা যায় যে তিনি শিশুদের জন্য কাজ করতে খুবই ভালবাসে তাই শিশুদের যাতে কোন অসুবিধা না হয় সেই দিকে তিনি বরাবরই নজর রাখেন ।

তিনি নিজেই শিশুদের বিকাশের যেন কোনো ত্রুটি না হয় সেই দিকে লক্ষ্য অবশ্যই রাখেন এবং তার স্বার্থ মত তিনি সবটুকু দিয়ে তাদের বিকাশের পথ উন্মুক্ত করে তোলে এবং এর সাথে সাথে আমাদের সকলকে তিনি শিশু বিকাশের জন্য হাতে হাত মিলিয়ে কিছু কাজ করতে বলেছেন।

আসলেই মধ্যপ্রদেশে বিভিন্ন জেলাতে উষ্ণতার পরিমাণ দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে যে তাপমাত্রা সাধারণ মানুষের পক্ষে ক্ষতিকর হয়ে উঠছে । বেশিরভাগ অঞ্চলের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা প্রায় ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ধার্য করা হচ্ছে । তার মধ্যে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় দেখা দিচ্ছে পানীয় জলের অভাব আর এই গরমের তাপমাত্রা পানীয় জলের অভাব প্রাণহানিও হতে পারে । তার সাথে সাথেই উষ্ণতা শিশুদের ক্ষতিগ্রস্ত করে তুলতে পারে ।

তাই মধ্যপ্রদেশের এই সরকারি আমলা এত বড় পদক্ষেপ নিল শিশু বিকাশের যাতে কোনো ক্ষতি না হয় তার জন্য সমস্ত শীততাপ যন্ত্র সরবরাহ করল । এই নজিরবিহীন ঘটনাটি সত্যি সকল দেশবাসীর কাছে অতুলনীয় ভাবে প্রশংসার দরজা অধিকার করে নিয়েছে । সাধারণ মানুষ এবং শিশুদের জন্য চিন্তা ভাবনা করার মত এরকম সরকারি আমলা যেন প্রচুর পরিমাণে গড়ে ওঠে এই কামনাই করা এবং সারা মিডিয়া জুড়ে এখন তার জয়জয়কার হচ্ছে ।

About khan

Check Also

বারবার ন্যাড়া করলে আসলে চুল ঘন হয় কিনা,বৈজ্ঞানিকরা চমৎকার তথ্য দিলেন

প্রাচীনকাল থেকেই সমাজে প্রচলিত নানা কথা আমরা নির্দ্বিধায় বিশ্বাস করি। তেমনি একটি কথা হচ্ছে, মাথা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *