Thursday , March 4 2021
Breaking News
Home / News / ডিসেম্বর থেকে আধার নম্বর দেখে তবেই রেশন

ডিসেম্বর থেকে আধার নম্বর দেখে তবেই রেশন

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ডিসেম্বর মাস থেকেই আধার নম্বর যাচাই করে রেশনে খাদ্যসামগ্রী দেবে খাদ্য দফতর৷ ইতিমধ্যেই জেলার আধিকারিকদের চিঠি দিয়ে সেকথা জানানো হয়েছে। নভেম্বর মাসের মধ্যে অন্তত অর্ধেক রেশন গ্রাহকের আধার যাচাই করে খাদ্যসামগ্রী দেওয়ার কথা বলা হয়েছে চিঠিতে।

জেলা ও মহকুমার খাদ্য নিয়ামক ও বিধিবদ্ধ রেশন এলাকার রেশনিং অফিসারদের কাছে এই চিঠি গিয়েছে। এতে আরও বলা হয়েছে, আধার সংক্রান্ত কাজ কতটা এগল, তা নিয়ে নভেম্বর মাসের শেষ দিকে বিশেষ বৈঠকে পর্যালোচনা করবেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ চিঠিতে এও ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে যে, কারও কাজে খামতি দেখা গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

গত ১৮ সেপ্টেম্বর এই সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করে খাদ্য দফতর। সেই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, রেশন গ্রাহক তাঁর পরিবারের সব সদস্যের আধার নম্বর দিয়ে নথিভুক্তিকরণ করাতে পারবেন। খাদ্যসামগ্রী নেওয়ার সময় নথিভুক্তদের আধার নম্বর ই-পস যন্ত্রে আঙুলের ছাপের মাধ্যমে যাচাই করা হবে। পরিবারের একজন সদস্য এসে আধার নম্বর যাচাই করে সবার বরাদ্দের খাদ্য সংগ্রহ করতে পারবেন। গ্রাহকের মোবাইল নম্বর যন্ত্রে নথিভুক্ত করা হবে।

কারণ রেশন নেওয়ার সময় নথিভুক্ত মোবাইলে ওটিপি আসবে। সেই ওটিপি ই-পস যন্ত্রে দিতে হবে। এতে রেশন ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আসবে বলে মনে করছে খাদ্য দফতর৷জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্প ও রাজ্য সরকারের দু’টি খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পে এখন প্রায় ৯ কোটি ১০ লক্ষ রেশন গ্রাহকের ডিজিটাল কার্ড আছে। কার্ড করার জন্য বিশেষ অভিযান এখন চলছে।

এতে কার্ডের সংখ্যা আরও বাড়বে। ভর্তুকিতে খাদ্যশস্য পান, এমন গ্রাহকদের আধার নম্বর সংযুক্তিকরণের কাজ এখন রেশন দোকানের ই-পস মেশিনে হচ্ছে। দফতর সূত্রের খবর, এখন মূলত আধার নম্বর যুক্ত করা হচ্ছে।

এরপর ই-পস মেশিনে গ্রাহকের আঙুলের ছাপের মাধ্যমে আধার নম্বর যাচাই করে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হবে। সেই কাজ এখনও শুরু হয়নি। এখন মেশিনে কার্ড সোয়াইপ করা হচ্ছে। তবেে ডিসেম্বর মাসের মধ্যে সব রেশন গ্রাহকের আধার নম্বর সংযুক্ত করতে হবে। এই কাজ কতটা এগচ্ছে, তার উপর অনলাইনে নজর রাখছে কেন্দ্র।

About khan

Check Also

মাটি খুঁড়লেই উঠছে হিরে, চাঞ্চল্য গ্রামজুড়ে, যাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা

নাগাল্যান্ডের প্রত্যন্ত গ্রামে হঠাৎ সন্ধান পাওয়া গেল হীরক ভাণ্ডারের। মাটি খুঁড়লেই উঠে আসছে হিরের টুকরো। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Alert: Content is protected !!