Sunday , October 2 2022
Breaking News
Home / Exclusive News / এবার মুলা থেকে খাবার তেল বানিয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিল মুন্সিগঞ্জের দম্পতি

এবার মুলা থেকে খাবার তেল বানিয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিল মুন্সিগঞ্জের দম্পতি

বর্তমানে দেশে সোয়াবিন তৈল সহ সব ধরনের ভোজ্য তেলের দাম ঊর্ধ্বমুখী। মুন্সিগঞ্জ সদর মধ্যকোটগাঁও এলাকায় মোহাম্মদ সেলিম মুলার বীজ থেকে উৎপাদন করছে ভোজ্য তেল। যে তেল ব্যবহার করা যাবে সয়াবিনের বিকল্প হিসেবে। আমাদের দেশে মুলাকে সবজি হিসেবে ব্যবহার করে কিন্তু মুলার বীজ থেকে তৈরি তেল এখন ভোজ্যতেলের হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। মুলার তেল ব্যাপক হারে উৎপাদন করতে পারলে সোয়াবিন তেলের উপর নির্ভরশীলতা এবং আমদানি কিছুটা কমবে। দেশেও কৃষকেরা মুলার আবাদ বৃদ্ধি করবে বীজ বিক্রির জন্য। প্রস্থত কারী মোহাম্মদ সেলিম মিয়া বলেন, প্রায় ছয় মাস যাবত মুলার বীজ থেকে উৎপাদিত তেল ব্যবহার করছে রান্নার ভোজ্যতেলের সামগ্রী হিসাবে।

তিন কেজি মুলার বীজ থেকে এক কেজি তেল উৎপাদন হয়ম বলে জানান তিনি। বর্তমানে ১ কেজি মুলার তেলে খরচ হয় সাড়ে তিনশত থেকে ৪০০ টাকা। ব্যাপকভাবে মুলার বীজ সংরক্ষণ করা গেলে সোয়াবিন এর চাইতে উৎপাদন খরচ কম হবে মুলার তেলের উৎপাদনে। তিনি আরো জানান, এখন খরচ অনেক বেশি হচ্ছে। সরকারি পর্যায়ে মুলার বীজ সংরক্ষণ করব ব্যাপক হারে তখন এর খরচ কমে যাবে অনেকাংশে। আমি সরিষা, বাদাম, কালিজিরা কুমড়া ও সূর্যমুখী বীজ থেকে তেল উৎপাদন করি এবং বিক্রি করি। আমাদের দেশে মুলার মৌসুমে দাম অনেক কম যার জন্য এর বীজ সংরক্ষণ করলে সোয়াবিন তেল এর চাইতেও কম দামে তেল উৎপাদন করা সম্ভব।

আমার চিন্তা থেকে আমি ৬ মাস আগে দোকান থেকে বীজ ক্রয় করে তেল উৎপাদন করে ব্যবহার করে আসছি। ভতেলের ঘনত্বের কারণে সোয়াবিন তেলের চাইতে পরিমাণ কম লাগে যে কোনো তরকারি তৈরী করতে। আমি চায়নার তৈরি মেশিন ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকায় ক্রয় করে এটি দিয়ে বিভিন্ন প্রকার তেল তৈরি করে বিক্রি করে থাকি তবে মুলার তৈরি তেল এখনো বিক্রি না করে নিজেদের জন্য ব্যবহার করে আসছি। তেল তৈরির বাকি অবশিষ্ট উপাদান ৫০ টাকা কেজি দরে মাছের খাদ্য এবং গাছের মধ্যে দেওয়ার জন্য ব্যবহার করে থাকে।

গ্রহিনী মৌসুমী আক্তার বলেন, আমার স্বামী সর্বদা বিভিন্ন ধরনের তৈল বিক্রি করে থাকে। আমি সবসময় তাকে সহযোগিতা করে থাকি। কিন্তু ছয় মাস যাবত মুলার বীজ থেকে উৎপাদিত তৈল তৈরি করি এবং বিভিন্ন সময় ডিম পোচ, অনেক ধরনের মাংস মাছ তরকারি রান্নাসহ এবং আমরা নিজেরাই ব্যবহার করে থাকি। পরোটা তৈরি করতে গেলে একটু গন্ধ থাকে অন্যান্য খাবারের কোন গন্ধ নেই। খাবার রান্না করতে গেলে সোয়াবিন তেল যে পরিমাণ লাগে মুলার তেলের ঘনত্ব থাকায় কম লাগে। আমি অন্যান্য গ্রহিনীদের বলব আপনারা এই মুলার তৈরি তেল আপনাদের ঘড়ের রান্না করতে পারেন সরকারি পর্যায়ে মুলার বীজের তেল কৃষি গবেষণা অধিদপ্তর থেকে গুণগত মান এবং উপকারিতা নির্ণয় করার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

About admin

Check Also

মানব শরী’রের কোন অ’ঙ্গটি জন্মের পর আসে আবার মৃ’ত্যুর আগে চলে যায়?

আমরা সবাই কম বেশি জানি। কিন্তু কেউ দাবি করতে পারি না যে ‘আমি সব জানি’। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.