Tuesday , August 3 2021
Breaking News
Home / Exception / একই গর্ভজাত যমজ শি’শুর দুই পিতা

একই গর্ভজাত যমজ শি’শুর দুই পিতা

সম্প্রতি চীনে এক দ’ম্পতি আবিষ্কার করেছেন যে, তাদের যমজ নবজাতকের পি’তৃত্ব আলাদা।

এতে তারা হতবাক হয়ে যান। একজন ডিএনএ বিশ্লেষক সাংবাদিকদের জানিয়েছেন যে, নবজাতকদের অ’ভিভাবক পিতা চীনে জ’ন্ম নি’বন্ধনের আ’ইনগত পদ্ধ’তির অংশ হিসাবে ডি’এনএ পরীক্ষা করার পর এই চ’মকপ্রদ তথ্য আ’বিষ্কার করেন।

পি’তৃত্বের তথ্য প্রস্তুতকারী আইনজীবি দেং ইয়াজুন বলেছেন যে, এ জাতীয় ঘটনা ঘটার সুযোগ কোটিতে একটি। বেইজিং জংজেং ফরেনসিক আইডেন্টিফিকেশন সেন্টারের পরিচালক মিস দেং চায়না নিউজ উইকলিকে ব্যাখ্যা করেছেন, ‘প্রথমে মাকে একই মাসে ১ টি’র পরিবর্তে ২টি ডিম উ’ৎপন্ন করতে হবে (য’মজ স’ন্তানের জন্য)।

দ্বিতীয়ত, এটি সম্ভব করার জন্য তার খুব অল্প সময়ের ব্যবধানে ২ জন পুরুষের সাথে শা’রীরীক স’ম্পর্ক করতে হবে।’

দেং মন্তব্য করেন, ‘ফলাফলগু’লি দেখিয়েছে যে, বা’চ্চাদের একই মা রয়েছে তবে একই বাবা নেই। তাদের কমপক্ষে ২ জন জন্ম’দাতা রয়েছে।’ একই নারীর গ”র্ভে আলাদা আলাদা পু’রুষের ঔ’রসে য’মজ জ’ন্ম নেয়া হে’টেরোপ্যাটার্নাল সুপা’রফেকা’ন্ডেশন নামে পরিচিত একটি অ’ত্যন্ত বিরল ঘ’টনা।

চীনে এর আগেও একই রকম ঘটনা ঘটেছে। দেশটির দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের জিয়ামিয়ান শহরের এক দম্পতি ২০১৯ সালে স্থানীয় থা’নায় তাদের যমজ ছে’লের জ’ন্ম নি’বন্ধন করতে যাওয়ার পর এঘটনা প্রকাশ পেয়েছিল। ডি’এনএ পরীক্ষার ফলাফল হাতে পাওয়ার পর অন্য যমজ শি’শুদের চীনা মা স্বী’কার করতে বাধ্য হয়েছিলেন যে, তিনি স্বামীর সাথে প্র’তারণা করেছিলেন।

নিবন্ধ প্রক্রিয়ার অংশ হিসাবে, বাচ্চাগু’লি যে তাদেরই ছিল তা প্রমাণ করার জন্য তাদের পি’তৃত্ব পরীক্ষার ফলাফলগু’লি উপস্থাপন করতে হয়েছিল। শিয়াওলং নামে পরিচিত স্বামী ভেবেছিলেন যে, তার একটি ছে’লে কেন তার মতো দেখায় না।

কথিত আছে যে, তার স্ত্রী’ প্রথমে কোনো স’ম্পর্ক থাকার বিষয়টি অ’স্বীকার করেছিলেন এবং তার স্বামীর প্রতি মি’থ্যা ফ’লাফল বলার অ’ভিযোগ এনেছিলেন।

জিয়াওলং তার স্ত্রী’কে আরো জি’জ্ঞাসাবাদ করার পর তিনি স্বী’কার করেন যে, তিনি অন্য একটি পু’রুষের সাথে স’ম্পর্ক করেছিলেন এবং এটি ছিল মাত্র এক রাতের ঘ’টনা। এর আগে, ২০১৪ সালে পূর্বের চীনা শহর ইইউউ’র ধনী ব্যবসায়ী জাউ গ্যাং তার ২ যমজ পু’ত্রের সাথে স’ম্পর্কযু’ক্ত নন আ’বি’ষ্কারের পর মানসিকভাবে ভে’ঙে পড়েছিলেন।

সানশিয়াং আরবান নিউজপেপারে বলা হয়েছে, বড় ছে’লের চোখের পাতা ভিন্নরকম বুঝতে পেরে গ্যাং তার ছে’লেদের ডিএনএ পরীক্ষার সি’দ্ধান্ত নিয়েছিলেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, বিষয়টির সঠিক অস্বাভাবিকতা গণনা করা কঠিন। দ্য গা’র্ডিয়ান অনুসারে, পূর্ব’বর্তী গবেষণাগু’লি থেকে জানা গেছে যে, এই সুযোগটি প্রতি ৪শ’ জোড়াতে একটি এবং ১৩ হাজার জোড়াতে একটি হতে পারে।

About khan

Check Also

সংবাদ পাঠিকার প্রেমে পাগল তিন প্রেমিক

দীর্ঘদিন পর সংবাদপাঠিকা রেহনুমা মোস্তফা এবার ঈদের বিশেষ ধা’রাবাহিকে অ’ভিনয় করেছেন। ৭ পর্বের বিশেষ এই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *