Tuesday , August 3 2021
Breaking News
Home / Exception / ‘আমার মেয়েই আমার পরিবারের লক্ষী’, মেয়ের পা ধুইয়ে জল খেলেন বাবা-মা, তু’মু’ল ভাইরাল ভিডিও!

‘আমার মেয়েই আমার পরিবারের লক্ষী’, মেয়ের পা ধুইয়ে জল খেলেন বাবা-মা, তু’মু’ল ভাইরাল ভিডিও!

সমাজ যতই আধুনিক হোক, নারী জগৎ এখনো অ-ন্ধকারেই র-য়ে গেছে। জন্ম থেকে শুরু করে মৃ-ত্যু পর্যন্ত নারী যেন সকলের কাছে এক বাড়তি বোঝা। এমনকি কন্যা সন্তান জন্মের পর বাড়ির বউদের সম্মানই কমে যায়।

এরমধ্যে অনেকে তো আবার গ-র্ভ-স্থ অবস্থাতেই কন্যা সন্তান না পুত্রসন্তান আছে জেনে নিয়ে তাকে মে-রে ফে-লার ফ-ন্দী করেন। কিছু মানুষের কাছে মেয়ে মানেই হা-জারো ঝ-ক্কি, মেয়ে মানেই ভো-গ্য সামগ্রী। কিন্তু এসব বাস্তবতা কে হা-র মানিয়ে একটি পিতার ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

যদিও অনেক বাড়িতেই মেয়েরা পুত্রসন্তানের তুল্য যত্ন পায়না। এমনকি তাদের খাওয়া-পরাও সী-মা-ব-দ্ধ। সেখানে এই ভিডিওটি এক আশার আলো। ভিডিওর দৃশ্য-গু-লি প্রমাণ করে দিচ্ছে সবাই যে মেয়েদের বাড়তি ভাবেন তা নয়। অনেক বাড়িতেই মেয়েরা লক্ষ্মী রূপে পূজিতা। অনেক বাবার কাছেই তাঁর মেয়ে মা লক্ষ্মীরই আর এক রূপ।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে লক্ষ্য করা যাচ্ছে একটি মেয়ের বিয়ে হবে। বিয়ের সকালে দধিমঙ্গল অনুসরণ।সেই সময় সকালে ঘুম থেকে উঠে মেয়ের বাবা পা ধুইয়ে দিলেন মেয়ের। প্রথমে জল দিয়ে তারপর দুধ দিয়ে।এরপর পা ধোয়ানো দুধ-জল খেয়ে নিলেন বাবা। মেয়ে খেতে না করায় মা খেয়ে নেন মেয়ের পা ধোয়া জল।

এরপরেই মেয়েটির বাবাকে দেখা যায় আলতা দিয়ে মেয়ের পায়ের ছাপ নিয়ে রাখতে। লক্ষ্মী পুজোতে সাধারণত এই রীতি দেখা যায়।মা-বাবাকে ছেড়ে প্রতিটি মেয়েকেই বিয়ে করে চলে যেতে হয় শ্বশুর বাড়ি একদিন, যদিও ব্যতিক্রম আছেন অনেকেই।

তবুও নিজের জন্মদাতাদের থেকে বি-চ্ছে-দে-র সেই ক-ষ্ট উপলব্ধি করতে পারেন একমাত্র সেই সন্তানই।ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় চরম ভাইরাল হয়েছে মেয়ের পা ধোয়া জল খাওয়া বাবার ভিডিও। অনেকে কমেন্ট বক্সে জানিয়েছেন,এরকম পিতা প্রতি ঘরে থাকলে আমাদের দেশের চেহারাটাই অন্যরকম হতো।

https://www.facebook.com/vinay.varshney.351/videos/1517642511956796/?t=0

About khan

Check Also

সংবাদ পাঠিকার প্রেমে পাগল তিন প্রেমিক

দীর্ঘদিন পর সংবাদপাঠিকা রেহনুমা মোস্তফা এবার ঈদের বিশেষ ধা’রাবাহিকে অ’ভিনয় করেছেন। ৭ পর্বের বিশেষ এই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *